অডিও টেপ বিতর্ক: রাজস্থানে, দুই কং বিধায়ক সাসপেন্ড, কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে গ্রেফতারের দাবি

অডিও টেপ ঘিরে রাজস্থানে তুলকালাম। কংগ্রেসের দাবি, বিজেপির সঙ্গে হাত মিলিয়ে সচিন পাইলট শিবিরের বিধায়করা সরকার ফেলার ষড়যন্ত্র করছে। কেন্দ্রীয় সরকারের জল শক্তি মন্ত্রী গজেন্দ্র সিং, বিজেপি নেতা সঞ্জয় জৈন ও কংগ্রেস বিধায়ক ভাঁওয়ার লাল শর্মার কথোপকথনের অডিও টেপে সেই প্রমাণ মিলেছে। মোটা অর্থ লেনদেনের প্রস্তাবের কথাও এতে উঠে এসেছে বলে অভিযোগ। রাজস্থানের কংগ্রেসের চিফ হুইপ মহেশ যোশীর অভিযোগের ভিত্তিতে দু’টি এফআইআর দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে স্পেশাল অপারেশনস গ্রুপ। ১২৪এ ও ১২০বি ধারায় মামলা রুজু করে সঞ্জয় জৈনকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পাশাপাশি অডিও টেপের সত্যতা যাচাই করা হচ্ছে। বিজেপি অবশ্য ঘোড়া কেনা-বেচার অভিযোগ-সহ কংগ্রেসের দাবি উড়িয়ে পাল্টা দাবি করেছে, কংগ্রেস নিজেদের ঘর সামাল দিতে না পেরে বিজেপির ভাবমূর্তি নষ্টের চেষ্টা করছে।  এরই মধ্যে শুক্রবার ১৭ জুলাই কংগ্রেস নেতা রণদীপ সুরজেওয়ালা সাংবাদিক বৈঠক করে বিজেপির বিরুদ্ধে  বিধায়ক কিনে রাজস্থান সরকার ফেলার ষড়য়ন্ত্রের কথা জানিয়েছেন।

দলবিরোধী কার্যকলাপের জেরে দুই বিদ্রোহী বিধায়ক ভাঁওয়ার লাল শর্মা ও বিশ্বেন্দ্র সিংয়ের দলের প্রাথমিক সদস্যপদ বাতিল করে শোকজের চিঠি পাঠিয়েছে কংগ্রেস। সুরজেওয়ালা দাবি করেছেন, হাওয়ালা অর্থের লেনদেনের দিকে নজরদারি চালানো হোক। গ্রেফতার করা হোক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গজেন্দ্র সিং শেখাওয়াতকে। বিজেপির হাতে বিধায়কদের তালিকা পৌঁছে দেওয়ার বিষয়ে জনসমক্ষে তাঁর অবস্থান স্পষ্ট করুন সচিন পাইলট‌। সচিনের সঙ্গে ১৮ জন বিদ্রোহী বিধায়ক ও কয়েকজন নির্দল বিধায়কের সমর্থন রয়েছে। তাঁদের বিধায়ক পদ খারিজের যে নোটিশ বিধানসভার অধ্যক্ষ সি পি যোশী জারি করেছেন তাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টে মামলা করেছেন পাইলট। তাঁদের কথায়, সরকার বা দলের নীতির সমালোচনা করায় তাঁদের বিরুদ্ধে দলত্যাগবিরোধী আইনে ব্যবস্থা নেওয়া যায় না।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*