সরোজ খান প্রয়াত

ফের বলিউডে দুঃসংবাদ। চলে গেলেন প্রখ্যাত কোরিওগ্রাফার সরোজ খান। শুক্রবার ৩ জুলাই রাত ২টো নাগাদ মুম্বইয়ের এক বেসরকারি হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। গত ২০ জুন প্রবল শ্বাসকষ্ট নিয়ে তিনি ওই হাসপাতালে ভর্তি হন। করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছিল। সুস্থ হয়েও উঠছিলেন। হঠাৎ বুধবার থেকে পরিস্থিতির অবনতি হতে শুরু করে। অবশেষে কার্ডিয়াক অ্যারেস্টের কারণে প্রয়াত হলেন। বয়স হয়েছিল ৭১ বছর। বলিউড তো বটেই, গোটা দেশের সংস্কৃতি মহল ও সারা বিশ্বে ছড়িয়ে থাকা তাঁর গুণমুগ্ধদের মধ্যে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

নির্মলা নাগপাল ওরফে সরোজ খান নজরানা ছবিতে শ্যামার ভূমিকায় অভিনয়ের পর ডান্স ডিরেক্টর বি সোহনলালের তত্ত্বাবধানে ব্যাকগ্রাউন্ড ড্যান্সার হিসেবে অনেক ছবিতে কাজ করেছেন। কোরিওগ্রাফার হিসেবে তাঁর প্রথম কাজ ১৯৭৪ সালে গীতা মেরা নাম ছবিতে।

১৯৮৭ সালে সরোজ তুমুল জনপ্রিয় হন মি. ইন্ডিয়া ছবিতে শ্রীদেবীর হাওয়া হাওয়াইয়ের জন্য। এরপর শ্রীদেবীর নাগিনা, চাঁদনি ছবির নৃত্য পরিচালক ছিলেন তিনি। শ্রীদেবী ও মাধুরী দীক্ষিতের সঙ্গে সরোজের জুটি বহু হিট উপহার দিয়েছে। নব্বইয়ের দশকে মাধুরীর এক দো তিন, হম কো আজ কাল হ্যায় ইন্তেজার, ধক ধক করনে লাগা, চোলি কে পিছে ক্যায়া হ্যায়, তাম্মা তাম্মার মতো হিট গানের কোরিওগ্রাফার ছিলেন সরোজ। প্রায় ২ হাজার গানে কোরিওগ্রাফার ছিলেন তিনি।

সরোজ খান যে ছবিগুলিতে কাজ করেছেন তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য বাজিগর, মোহরা, দিলওয়ালে দুলহনিয়া লে যায়েঙ্গে, তাল, বীর-জারা, পরদেশ, সোলজার, ডন, সাওয়ারিয়া, লগান, তনু ওয়েডস মনু রিটার্নস, মণিকর্ণিকা ইত্যাদি। দেবদাস, জব উই মেট, খলনায়ক, চালবাজ ইত্যাদি ছবির জন্য প্রচুর পুরস্কার পেয়েছেন। নাচ বালিয়ে, বুগি উগি, ঝলক দিখলা যা-সহ বেশ কয়েকটি ডান্স রিয়্যালিটি শোতে বিচারকের ভূমিকায় দেখা গিয়েছে তাঁকে। গত বছর মুক্তিপ্রাপ্ত কলঙ্ক ছবিতে তাঁর শেষ কাজ মাধুরীর সঙ্গেই, তাবাহ্ হো গয়ে গানে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*