৬ জেলায় বিপুল উৎসাহে কন্যাশ্রীরা এখন যুবযোদ্ধা

কন্যাশ্রী দিবসে বাংলার ৬ জেলায় বিপুল উৎসাহে কন্যাশ্রীরা যুবযোদ্ধা হতে নাম লেখালেন বাংলার যুবশক্তি কর্মসূচিতে। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের মস্তিষ্কপ্রসূত দৃষ্টান্তমূলক এই কর্মসূচি ইতিমধ্যেই ভালো সাড়া ফেলেছে। দল-মত নির্বিশেষে বাংলার যুবশক্তি বাংলাজুড়ে মানুষের পাশে থেকে সেবামূলক কাজে ব্রতী হয়েছে। দেশে এ ধরনের কর্মসূচি কার্যত একটি মডেল প্রজেক্ট।

এই কর্মসূচির কর্মশালায় বাঁকুড়া জেলায় গিয়ে ১১ আগস্ট ‘থ্রি মাস্কেটিয়ার্সে’র মাথায় এক অভিনব ভাবনা আসে। সোহম চক্রবর্তী, শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায় ও নির্মাল্য চক্রবর্তী বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, দুই বর্ধমান ও পশ্চিম মেদিনীপুরে এই কর্মসূচি দেখভালের দায়িত্বে আছেন। শান্তনু বলেন, কন্যাশ্রী দিবসে কন্যাশ্রীদের এই কর্মসূচিতে সামিল করার ভাবনা আমার মাথায় আসতেই সোহম ও নির্মাল্যকে জানাই।

এরপর অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সবুজ সঙ্কেত দিতেই ৬ জেলায় কন্যাশ্রীদের সামিল করার উদ্যোগ নিই। প্রতিটি অঞ্চলে বিশেষ শিবির করে আজ কন্যাশ্রী দিবসে কন্যাশ্রীদের যুবযোদ্ধা হিসেবে সামিল করা হয়েছে। প্রতিটি জেলায় ব্যাপক সাড়া মিলেছে। স্বাধীনতা দিবসেও যুবযোদ্ধা নিয়োগের বিশেষ শিবির চলবে। এই কর্মসূচিতে যুক্ত সকলে স্বাধীনতা দিবসে শপথ নেবেন দেশমাতৃকাকে সম্মান জানিয়ে রাজ্য তথা দেশের মানুষের পাশে থেকে জনসেবামূলক কাজ করার।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*