বিজেপি-রাজ্যে দলিত দম্পতির উপর নির্মম পুলিশি অত্যাচার

নির্মম পুলিশি অত্যাচারের জেরে কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন এক দলিত দম্পতি। ঘটনা বিজেপি-শাসিত মধ্যপ্রদেশে। গুণায় মডেল কলেজ নির্মাণের জন্য সরকার নির্ধারিত ৪৫ বিঘা জমিকে কেন্দ্র করে ঘটনার সূত্রপাত। ওই জমি গাব্বু পারডি দখল করে ওই দলিত দম্পতিকে দিয়ে সেখানে কৃষিকাজ করাতেন বলে অভিযোগ। পুলিশ নিয়ে সরকারি প্রতিনিধিরা ক্ষেতের ফসল নষ্ট করে জমি দখল করতে গেলে বাধা দেন রাজকুমার আহিরওয়ার (৩৮) ও তাঁর স্ত্রী সাবিত্রী (৩৫)। তাঁরাই গাব্বুর দখল করা ওই জমিতে চাষাবাদ করতেন।

বাধা পেয়েই রাজকুমারকে বেধড়ক মারতে থাকে পুলিশ। এই ঘটনা মঙ্গলবার ১৪ জুলাইয়ের। রাজকুমারের স্ত্রী ও সন্তানরা রাজকুমারকে বাঁচানোর চেষ্টা করলে তাঁদের উপরও নির্মম পুলিশি অত্যাচার চালানো হয়। এরপরই সস্ত্রীক রাজকুমার কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। আপাতত তাঁরা চিকিৎসাধীন। ঘটনার তীব্র নিন্দা করে কংগ্রেস জানিয়েছে, সরকার আইনের আশ্রয় নিয়ে জমি দখল করতে পারত। উচ্ছেদের জন্য এমন নির্মম অত্যাচার কখনোই কাম্য নয়। সরকারের এমন ভাবনা আর পদক্ষেপের প্রতিবাদেই আমাদের লড়াই, ঘটনার নিন্দা করে টুইট কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধীর।


ঘটনার প্রতিবাদে সরব হয়েছেন বিএসপি সুপ্রিমো মায়াবতী, দোষীদের শাস্তি দাবি করে শিবরাজ সিং চৌহান সরকারকে একহাত নিয়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় শিবরাজের পদত্যাগ চেয়ে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। অবস্থা সামাল দিতে গুণার এসপি ও কালেক্টরকে বদলি করেছে সরকার।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*